আবরার হত্যা: শের-ই বাংলা হলের প্রভোস্টের পদত্যাগ

|

বুয়েটের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে পদত্যাগ করেছেন শের-ই বাংলা হলের প্রভোস্ট মো. জাফর ইকবাল খান।

এর আগে মঙ্গলবার (০৮ অক্টোবর) দুপুর আড়াইটায় ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়টির ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান জানিয়েছিলেন, শিক্ষার্থীদের দাবি অনুযায়ী শেরে বাংলা হলের প্রভোস্ট পদত্যাগ করতে রাজি হয়েছেন। তিনি কথা দিয়েছেন তিনি পদত্যাগ করবেন। তিনি পদত্যাগ না করলে প্রয়োজনে আমি পদত্যাগ করব।

এদিকে, আবরার ফাহাদ হত্যার দায় নিয়ে বুয়েটের ভিসি অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলামকে পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির ৩০০ জন শিক্ষক। আজ বুধবার দুপুরে তারা এ আহ্বান জানান। গত সোমবার তড়িৎ ও ইলেক্ট্রনিকস প্রকৌশল বিভাগের শিক্ষার্থী আবরারকে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা পিটিয়ে হত্যার পর ৩৬ ঘণ্টা ধরে ভিসি ক্যাম্পাসে আসেননি। আবরারের লাশ দেখা, তার স্বজনের খোঁজ খবর নেয়া বা দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া- এমন কোনো পদক্ষেপই নেননি তিনি। এতে গতকাল বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে পড়েন তিনি। তার কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রাখেন বিচারের দাবি আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

প্রসঙ্গত, ভারতের সঙ্গে চুক্তির বিরোধিতা করে শনিবার বিকালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন ফাহাদ। এর জের ধরে রোববার রাতে শের-ই বাংলা হলের নিজের ১০১১ নম্বর কক্ষ থেকে তাকে ২০১১ নম্বর কক্ষে ডেকে নিয়ে ‘শিবির’ ট্যাগ লাগিয়ে বেধড়ক পেটানো হয়। চরম নির্যাতনের শিকার হয়ে আবরারের মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুহতাসিম ফুয়াদসহ ১৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আর ১১ জনকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।









Leave a reply