ঘরেই আল্লাহকে ডাকুন: সালমান খান

|

করোনার সংক্রমণ থেকে বাঁচতে মসজিদে না এসে ঘরে নামাজ পড়তে আহ্বান জানিয়েছেন বলিউড ভাইজান সালমান খান।

সম্প্রতি এক ভিডিওবার্তায় সালমান বলেছেন, আল্লাহ সবখানে আছেন। তাই পরিবারের সঙ্গে ঘরে বসে নামাজ পড়লেও তাকে পাওয়া যাবে। এই সংকটময় সময়ে সরকারি নিয়ম মানুন। লকডাউন ভেঙে মসজিদে আসার দরকার নেই। ঘরেই আল্লাহকে ডাকুন।

এরপরই পুলিশ এবং চিকিৎসকদের ওপর ভারতীয়দের পাথর ছোঁড়ার প্রতিবাদ জানান সালমান। যে সব ভারতীয় এমন ন্যাক্কারজনক কাজ করেছেন তাদের ধিক্কার জানিয়েছেন ভিডিওতে।

তিনি বলেন, ডাক্তাররা সবার জীবন বাঁচাতে এসেছেন। নার্সরা সেবা করছেন অক্লান্ত ভাবে। আর আপনারা তাদের ওপর পাথর ছুঁড়ে মারছেন! এমন আক্রমণের পর এই ডাক্তাররা যদি চিকিৎসা করবেন না বলে হাত-পা গুঁটিয়ে ফেলেন তবে করোনা রোগীর কি হবে? রোগ দূর হবে কীভাবে?

সালমান বলেন, প্রশাসন রাস্তায় অকারণে ঘুরতে থাকা মানুষদের ঘরে পাঠাচ্ছেন তাদের সুস্থ থাকার জন্য। তারা আপনাদের ভালোর জন্য করছেন এটা। আর আপনারা তাদের ওপর চড়াও হচ্ছেন! পাথর ছুঁড়ছেন! এভাবে তাদের ওপর অত্যাচার চালানোর অধিকার নেই কারোর। প্রশাসনের কথা শুনে লকডাউন না মানলে প্রয়োজনে দেশ এবং দেশবাসীর স্বার্থে সেনাবাহিনি নামাতে হবে। জনগণ আর ভক্তদের প্রতি এমন ক্ষোভ ঝেড়ে করোনার কারণে নিজের অসহায়ত্বের কথাও তুলে ধরেন এই সুপারস্টার।

ভিডিওতে সালমন জানান, লকডাউনের কারণে তার সব কাজ স্থগিত। বাবাকে টানা তিন সপ্তাহ ধরে দেখেননি তিনি। খুব কষ্ট লাগছে তার।

সালমান বলেন, এটা মেনে নিতেই হবে। এখন জীবনের বিগ বস শুরু হয়েছে। করোনা সংক্রমণে প্রথমে মনে হয়েছিল একসময় থেমে যাবে। কিন্তু যত দিন যাচ্ছে পরিস্থিতি এখন আরও গুরুতর হয়ে উঠেছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, লকডাউনে তিন সপ্তাহ ধরে পানভেলে নিজের ফার্ম হাউজে মা সালমা খান, বোন অরপ্রিতা খান, বোনের স্বামী আয়ুশ শর্মা এবং ভাই সোহেল খানের ছেলে নির্বাণকে নিয়ে থাকছেন সালমান। আর মুম্বাইয়ের বাড়িতে একা দিন পার করছেন বাবা সেলিম খান।

সালমান খানের সেই ভিডিওবার্তাটি দেখুন –

#IndiaFightsCorona CMOMaharashtra MyBmc #AadityaThackeray Rahul Kanal

Gepostet von Salman Khan am Samstag, 21. März 2020









Leave a reply