টাঙ্গাইলে শিক্ষানবিশ আইনজীবীর হত্যাকারী গ্রেফতার

|

নিহত রাজিব (ডানে)

টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে সম্প্রতি নিহত শিক্ষানবিশ আইনজীবী মেহেদী মোস্তফা ওরফে রাজিবের মূল হত্যাকারী ও তারই চাচাতো ভাই জিহাদকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আজ মঙ্গলবার বিকেল ৩টায় টাঙ্গাইল শহরের সন্তোষ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। নিহত আইনজীবী রাজিব ভূঞাপুর উপজেলার ফলদা ইউনিয়নের গারাবাড়ী গ্রামের গোলাম মোস্তফা ওরফে দুলালের ছেলে।

গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করে ভূঞাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রাশিদুল ইসলাম বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে টাঙ্গাইলের সন্তোষ থেকে ভূঞাপুরে সম্প্রতি খুন হওয়া ঢাকার শিক্ষানবিশ আইনজীবী মেহেদী মোস্তফা ওরফে রাজিবের মূলহত্যাকারী চাচাতো ভাই জিহাদ (২৮) কে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতার হওয়া জিহাদ নিহত আইনজীবীর চাচা মফিজুল হক চন্দনের ছেলে।

জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আগামীকাল বুধবার তাকে আদালতে পাঠানো হবে। এসময় তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে নিহতের বাবা গোলাম মোস্তফা ওরফে দুলাল বাদি হয়ে নিহতের তিন চাচাতো ভাই জিহাদ, সিফাত, রাহাত আর তাদের মা বেবিকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

গত বৃহস্পতিবার (১৮জুন) চাচা মফিজুল হক চন্দনের ছেলে জিহাদের সাথে তারই চাচাতো ভাই রাজিবের মধ্যে আম পাড়া নিয়ে বাকবিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। রাজিব বাড়ির গাছের আম পাড়ার জন্য জিহাদদের বাড়ির উচু একটা বাঁশ নিয়ে ছিলেন। এসময় বাঁশটি ভেঙে গেলে দু’জনের মধ্যে তর্কাতর্কির এক পর্যায়ে জিহাদ উপর্যুপরি তিনবার রাজিবের পেটে ছুরিকাঘাত করে। এতে রাজিব মাটিতে লুটিয়ে পড়লে স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়। পরে সেখানেও তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। এ সময় হাসপাতালের তিনতলা থেকে নিচে নামানোর পথেই মৃত্যু হয় রাজিবের। নিহত রাজিব ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিভাগে স্বাতকোত্তর শেষ করে ঢাকায় একজন জ্যেষ্ঠ আইনজীবীর সঙ্গে শিক্ষানবিশ হিসেবে কাজ করতেন।









Leave a reply