যুক্তরাষ্ট্রে বাধ্যতামূলক ছুটিতে ৮ লাখ সরকারি কর্মচারী

|

শাট ডাউনের কারণে স্থবির যুক্তরাষ্ট্রের বেশকিছু সরকারি খাত। সাপ্তাহিক ছুটির আগে বিরল অধিবেশনে বসে পার্লামেন্টের উভয়কক্ষ। কোন সমঝোতা না হওয়ায়; অর্থ বরাদ্দের ব্যাপারে সোমবার কংগ্রেসে হবে আবারও ভোটাভুটি। এ পরিস্থিতিতে, ৮ লাখের বেশি সরকারি চাকুরিজীবীকে বাধ্যতামূলক ছুটি নেয়ার নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

স্ট্যাচু অব লিবার্টি, লিংকন মেমোরিয়াল, জাতীয় যাদুঘর, চিড়িয়াখানা আর উদ্যানগুলোর মতো জনপ্রিয় সব পর্যটনকেন্দ্র শনিবার হঠাৎ করে বন্ধ ঘোষণা করা হয়। শাটডাউনের আওতাভূক্ত এসব স্থাপনা পরিদর্শনে এসে, ফিরে যান হাজারও পর্যটক। তাদের অনেকের জানা নেই, তহবিল বৃদ্ধিকে কেন্দ্র করে মার্কিন রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যেকার টানাপোড়েনের কথা।

ভুক্তভোগীদের একজন বলেন. শাটডাউন কার্যকর হতে পারে, এধরণের একটা গুঞ্জন শুনছিলাম। কিন্তু, রাতারাতি যে জাতীয় সব স্থাপনা বন্ধ করে দিবে- সেটা কল্পনায়ও ছিলো না। এখন, বিকল্প ট্যুর প্ল্যান করতে হবে।

আরেকজনের বক্তব্য, “গতরাতেও আমি যখন টিকেট কনফার্ম করলাম, সেসময় সব ঠিক ছিলো। অথচ, আজ দ্বীপে এসেও স্ট্যাচু অব লিবার্টি পর্যন্ত যেতে পারছি না। এরচেয়ে, দুঃখজনক আর কি হতে পারে!

কেবল সরকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা নয়, ৮ লাখের বেশি চাকুরিজীবীকে বাধ্যতামূলক ছুটিতে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।রোববার ছুটির আগে বিরল অধিবেশনে বসে পার্লামেন্টের উভয়কক্ষ। নিজস্ব প্রস্তাবের ব্যাপারে কোন পক্ষই ছাড় দিতে নারাজ। সেকারণে, সুর্নিদ্দিষ্ট সমঝোতা ছাড়া শেষ হয়, পার্লামেন্ট। চলে পরস্পরের প্রতি কাঁদা ছোঁড়াছুঁড়ি।

সিনেটে রিপাবলিকান নেতা মিচ ম্যাককনেল বলেন, পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে বিল পাস হয়েছিলো; তা সইয়ের জন্য প্রস্তুত ছিলেন প্রেসিডেন্টও। কিন্তু ডেমোক্র্যাটরা পুরো পরিকল্পনা ভেস্তে দিলেন। কারণ, তারা মার্কিনীদের চেয়ে অভিবাসন প্রত্যাশীদের বেশি গুরুত্ব দেন। এই বোকামির একটাই সমাধান- আসুন সবাই মিলে সরকারি কর্মকাণ্ড আবারও সচল করি।

তবে পাল্টা জবাব দিয়েছেন সিনেটে ডেমোক্র্যাটিক নেতা চাক শুমার। বলেন, প্রেসিডেন্ট একাই নেতৃত্ব দিতে চান; কংগ্রেসের উভয়কক্ষ, প্রেসিডেন্সি সব কিছু নিয়ন্ত্রণ করতে চায়। তাই বলবো- মার্কিনীরাই ভালো বুঝবে- এই শাটডাউনের জন্য আসলে কারা দায়ী। ট্রাম্প চাইলে এর সমাধান সম্ভব; আমরাও আলোচনার জন্য প্রস্তুত।









Leave a reply