কুড়িগ্রামে বন্যার পানিতে ডুবে শিশুসহ ৩ জনের মৃত্যু

|

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:

বন্যার পানিতে ডুবে একদিনে কুড়িগ্রামে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ২ জন শিশু ও একজন গ্রাম পুলিশ সদস্য। মৃতরা হলেন-বায়েজিদ (৮), মুন্নি (১৮ মাস) এবং গ্রাম পুলিশ সদস্য সুরুজ্জামান (৪৫)।

সিভিল সার্জন ডাক্তার হাবিবুর রহমান মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে জানান, চলতি দ্বিতীয় দফা বন্যায় এখন পর্যন্ত ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে শিশু ৪ জন। এছাড়াও প্রথম দফা ১২ দিনের বন্যায় পানিতে ডুবে এরিমধ্যে ৭ জন শিশুসহ ১০ জনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। এতে করে জেলায় প্রায় ৩ সপ্তাহ ধরে বন্যার পানিতে ডুবে ১৬ জনের প্রাণহানি হয়েছে।

উলিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: সুভাস চন্দ্র বলেন, উপজেলার হাতিয়া ও সাহেবের আলগা ইউনিয়নে দু’টি পৃথক ঘটনায় শনিবার সকালে পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সাহেবের আলগা ইউনিয়নের চর-বাগুয়া গ্রামের মন্তাজুলের পুত্র বায়েজিদ (৮) বন্যার পানিতে গোসল করতে গিয়ে ডুবে মারা যায়।

অপরদিকে হাতিয়া ইউনিয়নের চিড়া খাওয়ারপাড় গ্রামে নানা বাবর আলীর বাড়িতে বেড়াতে এসে বাড়ির পাশের ডোবায় ডুবে মারা যায় ১৮ মাসের কন্যা শিশু মুন্নি। তার বাবার নাম বকুল মিয়া। তার বাড়ি একই উপজেলার থেতরাই ইউনিয়নে।

চিলমারী থানার অফিসার ইনচার্জ আমিনুল ইসলাম জানান, নিজের ক্ষেতের পাট জাগ দিতে গিয়ে বন্যার পানিতে ডুবে সুরুজ্জামান মিয়া (৪৫) নামে এক গ্রাম পুলিশ সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার বেলা ১২টার দিকে কিসামতবানু মহিয়ত সুন্নত মাদ্রাসার সামনের বিলে এ ঘটনা ঘটে।

সুরুজ্জামান ওই এলাকার মৃত আব্দুল মজিদের ছেলে। পরে স্থানীয় লোকজন ও ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল দুপুর ২টায় বিলের মাঝ থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে।

ইউএইস/









Leave a reply