চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালে রোজা ভাঙতে পারবেন না সালাহ?

|

আর ক’দিন পরই ইউরোপীয়ান চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল। ২৬ মে ইউক্রেনের কিয়েভে যখন রিয়াল মাদ্রিদ-লিভারপুল ফাইনাল ম্যাচটি হবে তখন রোজা চলবে। ফলে আগ্রহ তৈরি হয়েছে, লিভারপুলের তুরুপের তাস মোহাম্মদ সালাহ রোজা রেখেই ফাইনাল খেলতে পারবেন কিনা তা নিয়ে।

দীর্ঘ ১৩ বছর পর ইউরোপ সেরা টুর্নামেন্টের শিরোপার একদম কাছাকাছি লিভারপুল। এবার ট্রফিটি ঘরে তুলতে মুখিয়ে অলরেডরা। স্বভাবতই, মোহাম্মদ সালাহর সেরাটা চান তারা। রোজা রেখে সালাহ সেরাটা দিতে পারবেন কিনা সেটি নিয়েই এখন যত সংশয়। সম্প্রতি এটি নিয়ে মন্তব্য করেছেন মুসলিম সালাফি নেতা ইয়াসের বোরহামি।

সালাফি দাওয়া গ্রুপের সহসভাপতি বোরহামির মতে, ইসলামি শরিয়াহ আইন অনুযায়ী, কারো বা স্বীয় স্বার্থে কেউ রোজা ভাঙতে পারবেন না। সালাহও এর বাইরে নন।

তিনি বলেন, কোরআনের কোথাও বলা নেই- ফুটবলারদের জন্য রোজা মওকুফ করা হয়েছে। জীবন রক্ষার্থে কঠোর পরিশ্রম করতে হলেই কেবল রোজা ভাঙা যায়। ফুটবল খেলা কখনই হাড়ভাঙা পরিশ্রমের আওতায় পড়ে না, যার জন্য রমজানে রোজা ভাঙতে পারবেন মুসলিমরা।

মূলত, মোহাম্মদ সালাহ একজন নিবেদিতপ্রাণ মুসলিম হওয়ায় এসব আলোচনা উঠেছে। নিয়মিত রোজা রাখেন তিনি। সে হিসেবে চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে রোজা রেখে খেলার কথা মিসরীয় ফুটবল জাদুকরের। যদিও অলরেডদের অনেক সমর্থক এবং সাপোর্টিক স্টাফ মনে করেন রোজা রেখে সেরাটা দেয়া সালাহ’র জন্য কঠিন হয়ে যাবে। আর মুফতি মহোদয় তো জানিয়েই দিলেন, শরিয়াহ মোতাবেক দলীয় স্বার্থে রোজা ভাঙতে পারবেন না সালাহ। অবশ্য, যাকে ঘিরে এত কথা সেই মোহাম্মদ সালাহ এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি।

যমুনা অনলাইন: এটি









Leave a reply