কাদের সিদ্দিকীর প্রার্থীর সমর্থনে বিএনপির প্রার্থী প্রত্যাহার

|

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

দুদিন পরেই টাঙ্গাইলের বাসাইল পৌরসভার নির্বাচন। নির্বাচনকে সামনে রেখে চলছিল ব্যাপক প্রচার-প্রচারনা। আর এরই মাঝে অনেকটা নাটকীয় ভাবে বিএনপির মেয়র প্রার্থী তার প্রার্থীতা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছেন। যদিও প্রার্থীতা প্রত্যাহারের দিন অনেক আগেই শেষ হয়েছে।

জানা যায়, নির্বাচনে কাদের সিদ্দিকীর কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ মনোনিত মেয়র প্রার্থীর সমর্থনে বিএনপি মঙ্গলবার তাদের প্রার্থীতা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়।

জেলা বিএনপির সভাপতি সামসুল আলম তোফা ও সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ ইকবাল এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, দলীয় উচ্চ পর্যায়ের নির্দেশে এবং গণতন্ত্র ও ভোটের অধিকার পুনঃপ্রতিষ্ঠার স্বার্থে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বিএনপি ও কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ সূত্র জানায়, বাসাইল উপজেলা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি আব্দুল কাদের সিদ্দিকী বীর উত্তমের নির্বাচনী এলাকা টাঙ্গাইল-৮ সংসদীয় আসনের অর্ন্তভূক্ত। তাই এ নির্বাচনকে সামনে রেখে উভয় দলের মধ্যে ঐক্যের আলোচনা চলছিল। আগামী ৩০ জুন বাসাইল পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী দলের উপজেলা শাখার সদস্য আব্দুর রহিম আহমেদ, বিএনপির প্রার্থী দলের উপজেলা শাখার সভাপতি এনামুল করিম ওরফে অটল এবং কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের প্রার্থী দলের উপজেলা শাখার সভাপতি রাহাত হাসান ওরফে টিপু প্রতিদ্বন্দিতা করছিলেন।

এটি বাসাইল পৌরসভার দ্বিতীয় নির্বাচন। কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তালুকদার বীর প্রতীক জানান, বৃহত্তর স্বার্থে বিএনপি তাদের মেয়র প্রার্থীকে নির্বাচন থেকে প্রত্যাহার করে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের প্রার্থীকে সমর্থন জানিয়েছে।

কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-সভাপতি আহমেদ আযম খান জানান, গণতন্ত্র ও ভোটের অধিকার পুনঃপ্রতিষ্ঠার আন্দোলনে বৃহত্তর ঐক্যের লক্ষ্যেই বিএনপির প্রার্থী প্রত্যাহার করে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের প্রার্থীকে সমর্থন দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের প্রথম পৌরসভা নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মজিবর রহমান মেয়র পদে বিজয়ী হন। এবার তিনি অংশ নিচ্ছেন না। সে নির্বাচনে মাত্র ১৭ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হন বিএনপির প্রার্থী এনামুল করিম।

উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ভোট পেয়ে তৃতীয় হন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ প্রার্থী রাহাত হাসান। সে নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী মশিউর রহমান চতুর্থ অবস্থানে ছিলেন।

বাসাইল পৌরসভায় ১৬ হাজার ৪০০জন ভোটার। এবার নির্বাচনে তিনটি সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১৪ জন এবং নয়টি সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। মোট ১০টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ করা হবে।

টাঙ্গাইল জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা ও বাসাইল পৌরসভা নির্বাচনের রির্টানিং কর্মকর্তা মো. তাজুল ইসলাম জানান, প্রার্থীতা প্রত্যাহারের সময় অনেক আগেই শেষ হয়ে গেছে। এখন যদি কোন প্রার্থী নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে চায় তাহলেও তার প্রতীক ব্যালটে থাকবে। এখানে আমাদের কিছু করার নেই।









Leave a reply