টুইটার কর্মী দিয়ে সমালোচকদের ওপর গোয়েন্দাগিরি করাতো সৌদি আরব

|

রাজপরিবারের সমালোচকদের উপর নজর রাখতে সৌদি সরকার টুইটারের দুজন কর্মী নিয়োগ দিয়েছিল বলে অভিযোগ করেছেন মার্কিন আইনজীবীরা৷ ওয়াশিংটনের সৌদি দূতাবাস এ বিষয়ে এখনও মন্তব্য করেনি৷

আইনজীবীরা বলছেন, সমালোচকদের তথ্য দেয়ার বিনিময়ে ঐ দুই ব্যক্তিকে কয়েক হাজার ডলার ছাড়াও ডিজাইনার ঘড়িসহ অন্যান্য অভিজাত উপহার দেয়া হয়েছে।

টুইটারে কাজ করা কর্মী দুজনের একজন সৌদি নাগরিক৷ তার নাম আলী আলজাবারাহ৷ অন্যজন মার্কিন নাগরিক৷ তার নাম আহমেদ আবুআমু। সৌদি রাজ পরিবারের সাবেক কর্মী আহমেদ আলমুতাইরির মাধ্যমে তারা সৌদি সরকারকে তথ্য দিয়েছেন বলে অভিযোগ৷

আলজাবারাহ ও আবুআমুর বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রে নিবন্ধন ছাড়া সৌদি আরবের এজেন্ট হিসেবে কাজ করার অভিযোগ আনা হয়েছে৷

আবুআমুকে যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটল থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷ আলজাবারাহ ও আলমুতাইরি সৌদি আরবে আছেন৷

টুইটারের সাবেক ঐ দুই কর্মী রাজপরিবারের সমালোচকদের টুইটার অ্যাকাউন্টের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ইমেল ঠিকানা ও আইপি ঠিকানার তথ্য সৌদি সরকারকে দিয়েছেন বলে অভিযোগ৷ আইপি ঠিকানার মাধ্যমে ব্যবহারকারীর স্থান সম্পর্কে তথ্য পাওয়া যায়৷

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক গবেষক অ্যাডাম কুগল জানিয়েছেন, সৌদি আরবের মোট জনসংখ্যার প্রায় এক-তৃতীয়াংশ সক্রিয় টুইটার ব্যবহারকারী৷ ফলে এটিই সে দেশের প্রধান সামাজিক মাধ্যম৷

যে টুইটার ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য দেয়া হয়েছে তাদের মধ্যে একজনের অনুসারীর সংখ্যা ১০ লাখের বেশি৷ তিনি সৌদি সরকারের সমালোলচক হিসেবে পরিচিত৷ এছাড়া একজন গণমাধ্যম ব্যক্তিত্বও আছেন এই তালিকায়৷

এদিকে, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করায় এফবিআই ও বিচার বিভাগকে ধন্যবাদ জানিয়েছে টুইটার কর্তৃপক্ষ৷









Leave a reply